কিছু নিয়মিত প্রশ্নের উত্তর দেখে নিন

আমি প্রবাসী সম্পর্কে

আমি প্রবাসী একটি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম যা বিদেশে চাকরি নিয়ে যেতে আগ্রহী বাংলাদেশি নাগরিকদের সকল তথ্য ও সেবা দিয়ে সহায়তা করছে। বিদেশ যাওয়ার সম্পূর্ণ পদ্ধতিকে আরও সাশ্রয়ী, স্বচ্ছ ও নির্ভরযোগ্য করে তুলতে ‘ওয়ান-স্টপ সলিউশন’ হিসেবে প্রতিনিয়ত কাজ করে যাবার পাশাপাশি বিদেশে অবস্থানকালীন নানান সেবা নিশ্চিতকরণেও কাজ করে যাচ্ছে আমি প্রবাসী।

বিএমইটি রেজিস্ট্রেশন, অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিদেশ গমনেচ্ছুদের ভ্যাক্সিনেশন, বিদেশে সরকার অনুমোদিত চাকরির খোঁজ, সরাসরি রিক্রুটিং এজেন্সির সাথে যোগাযোগের ব্যবস্থা, বিএমইটি ও ব্র্যাক পরিচালিত ট্রেনিং কোর্সে বিনামূল্যে আবেদনের সুযোগ, বিদেশে বৈধভাবে যেতে দরকারী জেলা জনশক্তি অফিস, পাসপোর্ট অফিস, রিক্রুটিং এজেন্সি, মেডিকেল সেন্টার, বাংলাদেশ দূতাবাসসমূহের অবস্থান ও বিস্তারিত তথ্যসহ আরও অনেক পরিষেবা চালু আছে। এছাড়াও যেকোন প্রয়োজনে আছে আমাদের সার্বক্ষণিক হেল্প সেন্টার।

না। আমি প্রবাসী কর্তৃপক্ষ নিজ উদ্যোগে কোন চাকরির বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে না এবং আমি প্রবাসী প্ল্যাটফর্মে পোস্টকৃত সকল চাকরির বিজ্ঞপ্তি সরকার অনুমোদিত রিক্রুটিং এজেন্সি দিয়ে থাকে। আমি প্রবাসী মূলত চাকরি প্রত্যাশী এবং চাকরি দাতার মধ্যে একটি সংযোগ হিসেবে কাজ করে।

না। আমি প্রবাসী কর্তৃপক্ষ তাদের প্ল্যাটফর্মে প্রকাশিত কোন চাকরিতে নিয়োগের নিশ্চয়তা দেয় না।

না। আমি প্রবাসী কর্তৃপক্ষের সাথে সুরক্ষা অ্যাপ কর্তৃপক্ষের কোন সরাসরি সম্পর্ক নেই। আমি প্রবাসীর মাধ্যমে বিদেশে গমনে ইচ্ছুক যে কেউ বিএমইটি রেজিস্ট্রেশন করতে পারে যা তাদের সুরক্ষা অ্যাপে ভ্যাকসিন রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার নিশ্চিত করে।

পাসপোর্ট ভেরিফিকেশন

ইংরেজিতে পুরো নাম, জন্মতারিখ, লিঙ্গ, পিতার নাম, মাতার নাম, স্বামী/স্ত্রীর নাম (যদি থাকে), পাসপোর্ট নম্বর, পাসপোর্ট ইস্যু করবার তারিখ, পাসপোর্টের মেয়াদোত্তীর্ণের তারিখ, বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা

না। পাসপোর্ট যাচাই করতে সকল তথ্য শুধুমাত্র ইংরেজিতেই দিতে হবে।

ছবিসহ PERSONAL DATA AND EMERGENCY DATA অংশের পাতা দুইটি স্ক্যান করতে হবে।

না। অনুগ্রহপূর্বক বিএমইটি রেজিস্ট্রেশনের জন্য পাসপোর্ট হালনাগাদ করুন।

আমরা সেটা যাচাই করব। পাসপোর্টে স্বামী/স্ত্রীর নাম থাকলে তা অবশ্যই বিএমইটি-এ থাকা নামের সাথে পুরোপুরি মিল থাকতে হবে।

সব তথ্য অবশ্যই ইংরেজিতে দিতে হবে। আমরা যাচাই করি
• জেলা থেকে জেলা,
• উপজেলা/ থানা থেকে উপজেলা/থানা,
• গ্রাম/এলাকা থেকে গ্রাম/এলাকা
• ইউনিয়ন/ওয়ার্ড থেকে ইউনিয়ন/ওয়ার্ড (যদি থাকে)
• রোড টু রোড (যদি থাকে)
• বাড়ি নম্বর থেকে বাড়ি নম্বর (যদি থাকে)

অনুগ্রহ করে আপনার পাসপোর্টের একটি পরিষ্কার ছবি, আপনার ফটো, ব্যক্তিগত বিবরণ এবং জরুরি যোগাযোগের পৃষ্ঠাগুলি সহ পুনরায় নিবন্ধন করুন এবং সঠিক তথ্যগুলো ইংরেজিতে দিয়ে ফর্মটি পূরণ করুন৷

রিক্রুটিং এজেন্সি

আমাদের অ্যাপে যেসকল রিক্রুটিং এজেন্সি নিয়মিত চাকরির বিজ্ঞপ্তি দিচ্ছে এবং লোকেশন সার্ভিসের অন্তর্গত রিক্রুটিং এজেন্সির তালিকায় আছে, সবগুলোই সরকার অনুমোদিত এজেন্সি।

আমি প্রবাসী অ্যাপে রেজিস্ট্রেশনের পর অ্যাপের উপরে, মাঝে চাকরি খুঁজুন অপশনে ট্যাপ করে চাকরি খুঁজতে পারেন অথবা রিক্রুটিং এজেন্সি অপশনে গিয়ে সরকার অনুমোদিত রিক্রুটিং এজেন্সিগুলোর সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন। অধিকাংশ রিক্রুটিং এজেন্সি ঢাকায় অবস্থিত।

আমি প্রবাসী অ্যাপের চাকরি খুঁজুন অপশনে গিয়ে কোন নির্দিষ্ট রিক্রুটিং এজেন্সির পোস্টকৃত চাকরিতে আবেদনের পর সেই এজেন্সিকে মেসেজ করতে পারবেন। এছাড়া, লোকেশন সার্ভিসের অন্তর্গত রিক্রুটিং এজেন্সির তালিকা থেকে সরকার অনুমোদিত এজেন্সিগুলোর ঠিকানা ও ইমেইল আইডি ব্যবহার করে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন।

একমাত্র আপনার ভিসা এবং বিএমইটি স্মার্ট কার্ড নিশ্চিত হওয়ার পর অনুমোদিত এজেন্টকে পেমেন্ট করুন ।

দালাল অথবা মধ্য স্বত্বভোগীদের থেকে দূরে থাকুন। এদের সাথে কোন ধরনের টাকা লেনদেনে যাবেন না। আমি প্রবাসী অ্যাপের মাধ্যমে বৈধ অনুমোদিত রিক্রুটিং এজেন্টদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করুন।

এক্ষেত্রে কোন নির্দিষ্ট নিয়ম নেই। দেশ, চাকরি এবং অন্যান্য আরও অনেক বিষয় অনুযায়ী তা ভিন্ন হতে পারে। বিস্তারিত জানতে আপনার রিক্রুটিং এজেন্সির সাথে সরাসরি যোগাযোগ করুন।

বাংলাদেশ ওভারসিজ এমপ্লয়মেন্ট এন্ড সার্ভিসেস লিমিটেড (বোয়েসেল)-এর মাধমে সরাসরি সরকারিভাবে বিদেশ যেতে পারবেন। আমি প্রবাসী অ্যাপে বোয়েসেল কর্তৃক প্রকাশিত চাকরির বিজ্ঞপ্তিতে আবেদন করতে পারেবেন। এছাড়া বিস্তারিত দেখতে পারবেন বোয়েসেল ওয়েবসাইটে www.boesl.gov.bd অথবা সরাসরি যোগাযোগ করতে পারেন এই ঠিকানায়ঃ ৭১, প্রবাসী কল্যাণ ভবন, ৪র্থ ফ্লোর, ৭২ ইস্কাটন গার্ডেন রোড, ঢাকা- ১২০০।

আমি প্রবাসী অ্যাপের "চাকরি খুঁজুন" অপশনে গিয়ে আপনার যোগ্যতা ও দক্ষতা অনুযায়ী কাঙ্ক্ষিত চাকরিগুলোতে আবেদন করলে তা সরাসরি রিক্রুটিং এজেন্সিদের কাছে পৌঁছে যায়। রিক্রুটিং এজেন্সি তাদের পছন্দসই আবেদনকারীদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করে পরবর্তীতে প্রসেস করে। এছাড়াও আপনি চাইলে সরাসরি তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। এক্ষেত্রে, আমি প্রবাসী সরাসরি কোন চাকরিতে নিয়োগ অথবা অন্য কোন বিষয়ে দায়িত্ব পালন করে না।

কর্মসংস্থান সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা

একটি মানসম্মত কর্মসংস্থান চুক্তিতে মজুরি/বেতন কাঠামো, কাজের সময়, ওভারটাইম ভাতা, ভ্রমণের ব্যয়, চিকিৎসা সুবিধা, খাবার ও আবাসন সুবিধা, সাপ্তাহিক ও বাৎসরিক ছুটি এবং অন্যান্য কাজের শর্তাদি ইংরেজিতে লিখিত থাকবে।

সাধারণত ১ থেকে ৩ বছরের হয় এবং এটি নবায়নযোগ্য।

বাংলাদেশের নারী কর্মীরা সাধারণত সেইসব দেশে চাকরির জন্য যেতে পারছেন, যেসব দেশের সাথে বাংলাদেশ সরকারের চুক্তি স্বাক্ষর করা আছে। বর্তমানে বিশ্বের অন্যান্য অনেক দেশেও বাংলাদেশের নারী কর্মীরা যাচ্ছেন যাদের সাথে বাংলাদেশ সরকারের এখন পর্যন্ত কোন চুক্তিপত্র স্বাক্ষরিত হয়নি। প্রধানত সৌদি আরব, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ওমান, কাতার ও কুয়েতে নারী কর্মীগণ বেশি যাচ্ছেন।

সাধারণত প্রবাসে যাওয়ার পরে ওয়ার্ক পারমিট/ইকামা (আকামা) পাবেন। আবার, ক্ষেত্রবিশেষে প্রবাসে যাওয়ার আগেই আপনি তা পেয়ে যেতে পারেন।

এটি নির্ভর করে আপনার নিয়োগকর্তা ও কর্মসংস্থান চুক্তির উপর।

বিমানবন্দরে কোন সমস্যার সম্মুখীন হলে বিমানবন্দরে অবস্থিত প্রবাসী কল্যাণ ডেস্ক অথবা এপিবিএন (আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন )-এর সাহায্য নিতে পারেন।

বিদেশ থাকাকালীন দরকারী তথ্য

• ডাক্তারের প্রেসক্রিপশন উল্লেখিত প্রয়োজনীয় ঔষধ
• কাস্টমসে উল্লেখিত ইলেক্ট্রনিকস পণ্য
• কাস্টমস দ্বারা অনুমোদিত খাবার সামগ্রী
• প্রয়োজনীয় পোশাকসহ বিদেশে ভ্রমণকারী ৬৫ কেজি পর্যন্ত ব্যাগ বহন করতে পারবেন।
এছাড়া বই, ব্যাক্তিগত জিনিসপত্র ও পোশাক বহনে আরও ৩৫ কেজি সাথে যোগ করতে পারবেন।

বাংলাদেশ দূতাবাসে যোগাযোগ করে আপনি বিদেশে থাকাকালীন সময়ে আপনার পাসপোর্ট নবায়ন অথবা নতুন পাসপোর্টের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

প্রথমত, হারানো পাসপোর্টের অফিসিয়াল রিপোর্ট নিকটস্থ থানায় দাখিল করুন। প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ নিকটস্থ বাংলাদেশের দূতাবাস অথবা কনস্যুলেটে যোগাযোগ করুন।

সাধারণত চুক্তির মেয়াদ শেষ হবার আগে চুক্তিবদ্ধ চাকরি পরিবর্তন করতে পারবেন না। চুক্তির মেয়াদ শেষ হবার পর পারবেন। তবে কখনো কখনো মেয়াদ শেষ হবার আগে চুক্তিবদ্ধ চাকরি পরিবর্তন করা নিয়োগকর্তার উপর নির্ভর করে।

করোনা ভ্যাকসিনেশন

আমি প্রবাসী অ্যাপ প্রবাসী এবং বিদেশে গমনেচ্ছুদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে করোনার টিকা প্রাপ্তিতে পাশে আছে। এজন্য বিএমইটি রেজিস্ট্রেশন থাকা বাধ্যতামূলক। সহজ কিছু ধাপ পেরিয়ে নিজেই করে ফেলুন টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশনঃ
• প্রথমেই আপনার ফোনের গুগল প্লে স্টোর থেকে Ami Probashi সার্চ করে ইন্সটল করুন।
• ইনস্টল করবার পর অ্যাপটি চালু করুন।
• এরপর আপনার ফোন নম্বর অথবা ইমেইল আইডি দিন।
• আপনার ফোন অথবা ইমেইলে একটি ভেরিফিকেশন কোড আসবে। সেটি দিয়ে ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করুন।
• এবার অ্যাপের উপরে, বাম দিকে বিএমইটি রেজিস্ট্রেশন ট্যাপ করুন।
• আপনার পাসপোর্টের PERSONAL DATA AND EMERGENCY DATA পাতা দুইটি স্ক্যান করে অথবা প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে বিএমইটি রেজিস্ট্রেশনের আবেদন সম্পন্ন করুন। মনে রাখবেন, মেয়াদোত্তীর্ণ পাসপোর্ট দিয়ে বিএমইটি রেজিস্ট্রেশন করা যাবে না। প্রয়োজনে বিএমইটি রেজিস্ট্রেশনের পূর্বে অবশ্যই আপনার মেয়াদোত্তীর্ণ পাসপোর্ট হালনাগাদ করে নিবেন।
• এবার, বিকাশ বা নগদের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন ফি বাবদ ৩০০ টাকা পেমেন্ট করুন।
• পেমেন্ট সম্পন্ন হবার পর পাসপোর্ট ভেরিফিকেশনে সর্বোচ্চ ৭২ ঘন্টা সময় প্রয়োজন। ভেরিফিকেশন সফল হলে আপনি একটি বিএমইটি নম্বর পাবেন।
• বিএমইটি নম্বর পাওয়ার পর আমি প্রবাসী অ্যাপে ভ্যাকসিনের নিবন্ধন ট্যাপ করে সুরক্ষা (www.shurokkha.gov.bd) অ্যাপে প্রবেশ করুন। এরপর সুরক্ষা অ্যাপের উপরে ডানে মেন্যুবারে গিয়ে নিবন্ধন (পাসপোর্ট)-এ যেয়ে যাবতীয় তথ্য দিয়ে টিকার নিবন্ধন সম্পন্ন করুন।
বি:দ্র: আমি প্রবাসী অ্যাপের মাধ্যমে সরাসরি করোনার টিকার জন্য রেজিস্ট্রেশন সম্ভব নয়।

অনুগ্রহ করে সুরক্ষা অ্যাপ কতৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করুন। আমি প্রবাসী কর্তৃপক্ষের সাথে সুরক্ষা অ্যাপ কর্তৃপক্ষের সরাসরি কোন সম্পর্ক নেই। আমি প্রবাসী অ্যাপ এর মাধ্যমে প্রবাসীরা বিএমইটি রেজিস্ট্রেশন করতে পারবে যা তাদেরকে সুরক্ষা অ্যাপ এ ভ্যাকসিন রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার দিবে।

ট্রেনিং

দক্ষতা না থাকলে বিদেশে চাকরি পাওয়া প্রায় অসম্ভব। দক্ষতা অর্জন করে মানসম্মত বেতনের চাকরি নিয়ে ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করুন।

আবেদন প্রক্রিয়ার চারটি ধাপ সম্পন্ন করে কনফার্মেশনের জন্য অপেক্ষা করুন। কনফার্মেশনের পর পেমেন্ট করতে পারবেন।

রেমিট্যান্স

সরকার অনুমোদিত ব্যাংকিং চ্যানেল ব্যবহার করে আপনি বৈধভাবে দেশে টাকা পাঠাতে পারবেন।